আজ

  • মঙ্গলবার
  • ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ফেনী যুবদলের নতুন কমিটির নেতৃত্বে আসতে তোড়জোড়

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল ফেনী জেলার অধীনস্থ ছয় উপজেলা ও পাঁচ পৌরসভার ১১টি সাংগঠনিক ইউনিটে বর্তমানে নেই কোন কমিটি। স্থবির হয়ে পড়েছে সাংগঠনিক কর্মকান্ড। এদিকে নতুন কমিটি গঠনে কেন্দ্র থেকে চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি মোশাররফ হোসেন দীপ্তির নেতৃত্বে একটি মনিটরিং টিম গঠন করা হয়। ওই টিমের সদস্যরা বিভিন্ন ইউনিটে কমিটি গঠনের লক্ষে জেলা নেতাদেরকে নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন।

    যুবদলের একটি সূত্র জানায়, স্বল্প সময়ের মধ্যেই বিলুপ্তিকৃত ১১টি ইউনিটের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে। তাই সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীরাও নেতৃত্বে আসতে জোর দেন-দরবার ও তদবির চালাচ্ছেন।

    দলীয় সূত্র জানায়, ফেনী জেলা যুবদলের আওতাধীন সকল ইউনিটের কমিটি গত ২১ ফেব্রুয়ারি জেলা যুবদল সভাপতি জাকির হোসেন জসিম ও খোন্দকার নাছির উদ্দিন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। সংগঠনকে পুনর্গঠন করার লক্ষ্যে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে সংগঠন সূত্র জানিয়েছে।

    আরো জানায়, যুবদলের চট্টগ্রাম বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক যুবদলকে গতিশীল করার লক্ষ্যে পুনর্গঠন করতে সকল উপজেলা, পৌরসভা এবং আওতাধীন ইউনিট কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। বর্তমানে বিলুপ্তকৃত ইউনিট সমূহের কমিটি গঠনে কার্যক্রম অনেকটা এগিয়ে নিয়েছে জেলা যুবদলের শীর্ষনেতারা।

    জেলার আওতাধীন ফেনী সদরে আহ্বায়ক কমিটিতে সম্ভাব্য নেতৃত্বে যাদের নাম আলোচনায় রয়েছে তারা হলেন- সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আহ্বায়ক আতিকুর রহমান মামুন, যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুল ইসলাম, কামাল মজুমদার, মো. শাহাদাত হোসেনের পাশাপাশি নতুন করে ছাত্রদল নেতা ফখরুল ইসলাম মাশুক, ফরিদুল ইসলাম রাহাত, মাস্টার নিজাম উদ্দিন, ও ফারুক উল্যাহ মুরাদের নাম আলোচনায় রয়েছে।

    ফেনী পৌর যুবদলের সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন জাহিদ হোসেন বাবলু, হায়দার আলী রাসেল পাটোয়ারী, নিজাম উদ্দিন সোহাগ ও নুর ইসলাম। এ ইউনিটে দীর্ঘ প্রায় ২৭ বছর কোন সম্মেলন কিংবা কমিটি করা হয়নি।

    দাগনভূঞা উপজেলা ও পৌরসভায় সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন হাসানুজ্জামান শাহাদাত, কবির আহমদ ডিপলু, নিজাম উদ্দিন হুদন, জামাল উদ্দিন টিংকু, আবদুল্লাহ আল মামুন, ইমাম হোসেন, মনসুর আহমেদ, সুমনসহ আরো একাধিকের নাম।

    সোনাগাজী উপজেলা ও পৌরসভায় সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে আলোচনায় যাদের নাম রয়েছে তারা হলো- খুরশিদ আলম ভূঁইয়া, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান দাউদুল ইসলাম মিনার, সিরাজুল ইসলাম বিএ, জহিরুল আলম সুমন, আবদুল
    হালিম, হাসান মাহমুদ, ইমাম হোসেন পবির, আলী আহম্মদ, ইকবাল হোসেনসহ একাধিক নাম।

    ছাগলনাইয়া উপজেলা ও পৌরসভায় সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে যাদের নাম আলোচনায় উঠে এসেছে- কাজী জসিম, মোমিন, মো. আজাদ, আবদুল কাদের জিলানী, মো. সোহাগ, জয়নাল আবেদীন, আলমগীর হোসেনসহ আরো অনেকে।

    ফুলগাজী উপজেলায় সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে কামাল হোসেন কামাল, ফরিদুল ইসলাম, শাহীন, আবদুল কাদের জিলানী, ইসমাইল ভূঁইয়া টিপু ও সোহেল মজুমদারের নাম আলোচনায় রয়েছে।

    পরশুরাম উপজেলা ও পৌরসভায় সম্ভাব্য পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, সামছুল আলম শাকিল, জহিরুল ইসলাম, খোকন, আদিল মজুমদার, আবুল খায়ের লিটনের নাম বার বার আলোচনায় উঠে এসেছে।

    যুবদলের নতুন নেতৃত্বে পদ-প্রত্যাশীদের মধ্যে সাবেক ছাত্রনেতাদের পাশাপাশি যারা বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে সক্রিয় থেকে মামলা-হামলার শিকার হয়ে জেল, জুলুম ও হয়রানির শিকার হয়েছেন তারাই অগ্রাধিকার পাবে।

    ফেনী জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক খোন্দকার নাছির উদ্দিন বলেন, নতুন কমিটি গঠনের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আমরা যুবদলের সাংগঠনিক কর্মকান্ডকে গতিশীল ও শক্তিশালী করতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে জেলা যুবদলের অধীনস্থ ১১টি সাংগঠনিক ইউনিটের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090