আজ

  • সোমবার
  • ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ধলিয়ার সৌদি প্রবাসী জামালের জায়গা জবর দখল, হামলা-মামলা দিয়ে হয়রানীর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

  • শহর প্রতিনিধি
  • ফেনী সদর উপজেলার ধলিয়া ইউনিয়নের বালুয়া চৌমুহনীর মধ্যম ধলিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাসেম কমান্ডারের বাড়ির সৌদি প্রবাসী মো. জামাল উদ্দিন সুজন তার জায়গা জবর দখল, হামলা-মামলা দিয়ে হয়রানীর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

    মঙ্গলবার সকালে ফেনী শহরের একটি রেস্তোরায় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সৌদি প্রবাসী মো. জামাল উদ্দিন সুজন।

    লিখিত বক্তব্যে তিনি উল্লেখ করেন, দীর্ঘ ২০ বছর সৌদি প্রবাসে রয়েছি আমি অত্যন্ত দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। আমার আপন ছোট ভাই মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন (ছদ্ম নাম নাজিম উদ্দীন নিজাম) আমার প্রবাসে কষ্টার্জিত টাকার লোভে ও আমার সম্পত্তির লোভে সামলাতে না পেরে। ২০০৯ সালে আমার খরিদ করা মালিকরা জায়গা থেকে প্রায় তিন লক্ষ টাকা মূল্যের ১৪টি গাছ কেটে বিক্রি করে দেয়। আমার মালিকীয় পৌনে ৭ ডিসিমেল জায়গা জবর দখল করার চেষ্টা করে। আমার জায়গায় টিউবওয়েল বসিয়ে রাখে এতে আমার স্ত্রী সন্তান প্রতিবাদ করায় তাদেরকে শাররিক মানসিক ও নির্যাতন চালায়। রেগে গিয়ে উক্ত জায়গায় গরুর গোবর জমিয়ে রাখে ও বসত ঘরের উপর গরু ছাগলের খামার দিয়ে ঘরের দরজা জানালার সামনে গোবর রেখে দূগন্ধ ছড়িয়ে পরিবেশ নষ্ট করে। বারান্দা দিয়ে জায়গা দখল করার চেষ্টা করে আমার স্ত্রী ও ছেলেমেয়েদের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালায়।

    তিনি আরো বলেন, আমি প্রবাসে থাকার কারণে। আমার স্ত্রী সাজেদা আক্তার বাদী হয়ে ফেনী অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার দীর্ঘ তদন্ত শেষে। আমার দখলীয় জায়গা আমাকে একটি ঘর নির্মাণ করার অনুমতি প্রদান করে। আদালতের রায় পেয়ে আমি ঘর নির্মাণের শুরু করলে এতে লিন্টার পর্যন্ত প্রায় ১২ হাজার ইটের গাথুনির কাজ সম্পন্ন হলে আমার ভাই নিজাম উদ্দিন, বোন রেহানা আক্তার, তার স্বামীর রবিউল হক, আমার জেঠাতো ভাই নুর আহমদ ও নুরুজ্জামান, আমার ভাইয়ের স্ত্রী শারমিন আক্তার ও তাদের ভাড়া করা সন্ত্রাসীদের নিয়ে আমার নির্মাণাধীন ঘর ভেঙ্গে ১৮ হাজার ইট নির্মাণাধীন ঘরের মালামাল নিয়ে যায়। এ বিষয়ে আমি বাদী হয়ে ফেনী মডেল থানা ২০১৫ সালে একটি মামলা দায়ের করে মামলা নং ২৮। মামলা দায়েরের প্রায় চার মাস পর আমি ফের বিদেশে চলে যাই। আমি বিদেশ চলে যাওয়ার পর সে সুযোগে মামলা তৎকালীন কর্মকর্তা আজিজ আহমেদ আমার ভাই নিজাম উদ্দিন এর সাথে আঁতাত করে মামলায় ঘটনার তারিখ পরিবর্তন করে আমার মামলায় আমাকে ফাঁসিয়ে দেয়।

    এতেও সে ক্ষান্ত হয়নি, আমার ভাই নিজাম উদ্দিন সে তার স্ত্রী শারমিন আক্তারকে দিয়ে আমার নামে ২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবর একটি চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করে। কিন্তু উক্ত তারিখে আমার দায়ের করা মামলার তারিখ থাকায় আমি ঐদিন ফেনীর আদালতে অবস্থান করি এবং ওইদিন আমার স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় আমাকে আমার জায়গায় ঘর করার অনুমতি প্রদান করে। সে আমার আপন ভাইয়ের স্ত্রী হয়ে ও মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে মামলায় আমাকে তার প্রতিবেশী সাজিয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করে।

    বার বার আমাকে আমার স্ত্রী সন্তানদের উপর অমানবিক নিষ্ঠুর নির্যাতনের কারনে অতিষ্ঠ হয়ে ২০২০ সালের ২৪ জুন আমার প্রথম স্ত্রী সাজেদা আক্তার স্ট্রোক করে মৃত্যুবরণ করেন। আমি প্রবাসে থাকার কারণে আমার স্ত্রী হত্যার বিচার পাইনি। প্রবাস থেকে দেশে এসে আমি আমার সন্তানদের দেখাশুনা করতে বিয়ে করি। বর্তমানে আমার ভাই নিজাম উদ্দিন আমার স্ত্রী সন্তানদের উপর ফের মানসিক শারীরিক নির্যাতন শুরু করেছে।

    তিনি আরো বলেন, আমার মালিকীয় জায়গা থেকে আমার মালিকীয় গাছের ঢালপালা কাটলে সে ঢাল নিতে বাধা প্রদান করে। ফেইসবুকে ও স্থানীয় পত্রিকায় আমার নামে মিথ্যাচার করছে। সে নিজেকে প্রবাসী দাবী করলেও সে বর্তমানে দেশে অবস্থান করে সন্ত্রাসী কাজে লিপ্ত রয়েছে। এ ছাড়াও গত ২৩ জানুয়ারি ২২ সালে আমি শশুর বাড়ীতে থাকার সুযোগে আমার ভাই নিজাম উদ্দিন আমার মালিকীয় পুকুর থেকে জোর করে পুকুর সেচ দিয়ে প্রায় ৭০ হাজার টাকা মূল্যের মাছ লুট করে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে বাড়ীতে আসতে গালমন্দ এ বিষয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি করলে ফল ভালো হবে না।
    আমি প্রবাসী হিসাবে বর্তমানে ছেলে ও স্ত্রী পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

    আমি আপনাদের মাধ্যমে প্রশাসনের সহযোগিতায় আমার নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার সহ সকল নির্যাতন বন্ধ ও বসত ঘর ভেঙ্গে নেয়ার সঠিক বিচারের দাবীতে প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের কাছে সহযোগিতা কামনা করছি।

    সংবাদ সম্মেলন উপস্থিত ছিলেন জামালের বড় ভাই আবদুল মমিন, ছেলে আশরাফ হোসেন, ভাতিজা আবদুল আজিজ, জামালের শশুর ওয়াজি উল্যাহ ভূঞা।

    অভিযোগ বিষয়ে জানতে মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন এর মুঠোফোনে কল দিলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090