আজ

  • বুধবার
  • ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্যাংকার সেন্টুকে নিয়ে মরিয়া কুচক্রীদের অপপ্রচারই এখন হাতিয়ার

  • নিজস্ব প্রতিনিধি
  • ফেনী শহরের মহিপালে চৌধুরী এন্ড ব্রাদার্স মোটর্সে হামলার ঘটনায় ব্যাংকার মনোয়ার হোসেন সেন্টুকে জড়াতে মরিয়া হয়ে উঠে কুচক্রী মহল। ষড়যন্ত্রে ব্যর্থ হয়ে ওই মহল এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচারকেই হাতিয়ার হিসেবে বেঁচে নিয়েছে।

    জানা গেছে, গত ১৫ মার্চ রাত ৯টার দিকে শহরের মহিপালে চৌধুরী এন্ড ব্রাদার্স মোটর্সে হামলার ঘটনা ঘটে। দোকানে হামলার ঘটনায় চৌধুরী এন্ড ব্রাদার্স মোটরসের মালিক একরাম চৌধুরী ফেনী মডেল থানায় মামলা করেন। পরের দিন বিবাদীরা কোর্ট থেকে জামিনে আসে। এনিয়ে গত কয়দিন অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাংকার সেন্টুকে জড়িয়ে বিভ্রান্তমূলক অপপ্রচার ছড়াচ্ছে।

    চৌধুরী এন্ড ব্রাদার্স মোর্টসের মালিক একরাম চৌধুরীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, সেন্টু আমাদের পারিবারের সদস্য ও আত্মীয়। গত ১৫ মার্চ আমার ছেলের সাথে সেন্টুর মামাতো ভাইয়ের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তারই রেশ ধরে রাত ৯টার দিকে কয়েকজন বখাটে যুবক আমার দোকানে এসে হামলা করে, এমন সংবাদ পেয়ে সেন্টু ঘটনাস্থলে ছুটে এসে উভয় পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। এখানে তো আমি সেন্টুর কোন দোষ দেখি না। এছাড়া আমি বাদী হয়ে যে মামলাটি করেছি তাও আমাদের সকলের পরামর্শে আপোষ হয়েছে। কারণ আমরা সবাই একই সমাজের। সমাজের বাইরে কেউ যেতে পারবো না। আমরা নিজেরা নিজেরা বিরোধ করলে বাইরের সুবিধবাদীরা সুযোগ নেয়ার চেষ্টা করবে।

    এ বিষয়ে ব্যাংকার মনোয়ার হোসেন সেন্টুর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, একরাম চৌধুরী আমাদের মুরুব্বী ও অভিভাবক। এ বিষয়ে জানতে হলে একরাম চৌধুরীর সাথে কথা বলতে হবে। তাহলে সঠিক সংবাদ জানবেন।

    ঘটনাটি আপোষ ও প্রভাবশালীদের নাম ভাঙিয়ে গত ক’দিন ধরে নানাভাবে চেষ্টা-তদবীরের বিষয়ে জানতে চাইলে একরাম চৌধুরী আরো বলেন, এমন কোন কথা আমি বা আমরা কাউকে বলিনি। এসবের কোন ভিত্তি নেই। আমরা সবাই সমাজবদ্ধ, তাই সামাজিকভাবে মিমাংসা হয়েছে এটিকে ভিন্ন খাতে নিতে কুচক্রীরা তৎপর। দুই পক্ষকে তারা ঢের কুমন্ত্রনা দিতে উঠেপড়ে লেগেছিলো। ব্যর্থ হয়ে ওই মহল এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এপি/এমকে


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090