আজ

  • শুক্রবার
  • ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সোনাগাজী সরকারী কলেজ পাঠদান বন্ধ, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ফেনীর সোনাগাজী সরকারী কলেজে দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসায়ী শিক্ষা বিভাগে অধ্যয়তরত শিক্ষার্থীদের ব্যস্থাপনা বিষয়ের পাঠদান না হওয়ায় নির্বাচনী পরীক্ষায় উক্ত বিষয়ে ফেল করেছে অনেক শিক্ষার্থী। প্রতিবাদে বুধবার ক্লাস বর্জন করে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ব্যবস্থাপনা বিষয়ের শিক্ষকের দাবীতে কলেজ ক্যাম্পসে বিক্ষোভ করে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে শিক্ষকদেরকে প্রায় দুই ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। তবে শিক্ষকদেরকে অবরুদ্ধ করে রাখার বিষয়টি অধ্যক্ষ মো. মহীউদ্দিন চৌধুরী অস্বীকার করেন।

    শিক্ষার্থীরা জানায়, বিগত প্রায় ছয়মাস ধরে কলেজে ব্যবসায়ী শিক্ষা বিভাগে অধ্যয়রত শিক্ষার্থীদের ব্যবস্থাপনা বিষয়ের পাঠদান হচ্ছে না। একজন শিক্ষক ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে কর্মরত থাকলেও তিনি ঠিকমত কলেজে আসেন না। কর্তৃপক্ষ তাঁদেরকে শিক্ষক সংকটের কথা বলে আসছে। কিন্তু দীর্ঘদিন এ বিষয়ে পাঠদানের কোন সমাধান না হওয়ায় বুধবার তাঁরা কলেজ ক্যাম্পাসে জড়ো হয়ে পাঠদানের দাবীতে বিক্ষোভ করে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে যায়। সেখানে শিক্ষকদের কাছ থেকে কোন প্রকার সমাধান যোগ্য মতামত না পাওয়ায় তাঁরা অধ্যক্ষের কার্যালয়ে শিক্ষকদেরকে সকাল ১০-১২টা পর্যন্ত অবরুদ্ধ করে রাখে। এসময় শিক্ষকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বাক-বিতন্ডতা ও উচ্চস্বরে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। এতে শিক্ষকরা কলেজের প্রশাসনিক ভবনের কলাপসিপল গেটে তালা লাগিয়ে তাঁরা ভেতরে অবস্থান করেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেন।

    শিক্ষার্থীরা আরও জানায়, দীর্ঘদিন ধরে কলেজে কর্তৃপক্ষের অনিয়ম ও দূর্নীতির কারণে শিক্ষার্থীরা তাঁদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

    একাদশ শ্রেণির ছাত্র মাজহারুল ইসলাম ও দ্বাদশ শ্রেণির নাহিদুল ইসলাম জানায়, দীর্ঘদিন ধরে তাঁদের ব্যবস্থাপনা বিষয়ের পাঠদান না হওয়ায় নির্বাচনী পরীক্ষাসহ কলেজের সাময়িক পরীক্ষাগুলোতে শিক্ষার্থীরা ফেল করছে। বিষয়টি তাঁরা অধ্যক্ষকে বারবার জানিয়েও কোন সমাধান না পেয়ে বুধবার তাঁরা কলেজে পাঠদানের দাবীতে বিক্ষোভ করে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে গিয়ে আবেদন করেন। কিন্তু শিক্ষকদের আচরণে ক্ষুদ্ধ হয়ে অধ্যক্ষের কার্যালয়ে শিক্ষকদেরকে অবরুদ্ধ করে কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। দীর্ঘক্ষণ পর দ্রুত শিক্ষক সংকটসহ পাঠদানের বিষয়টি সমাধানের কথা বলায় তাঁরা কলেজ মাঠে চলে যায়।

    জানতে চাইলে কলেজ অধ্যক্ষ মো. মহীউদ্দিন চৌধুরী শিক্ষকদের অবরুদ্ধ করে রাখার বিষয়টিসহ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, গত দুই-তিন সপ্তাহ আগে দুইজন শিক্ষক বদলী হয়ে অন্যত্র চলে যাওয়ায় ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে শিক্ষক সংকট সৃষ্টি হয়েছে। তবে কষ্ট হলেও শ্রেণি কার্যক্রম যথারীতি চালানো চেষ্টা করছেন।

    তিনি বলেন, কলেজ শিক্ষকদেরকে অবরুদ্ধ করে রাখার প্রশ্ন আসে না। এটা একটা অপপ্রচার। ২০২০ সালে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের মধ্যে টেষ্ট পরীক্ষায় ফেল করা শিক্ষার্থীদেরকে ফরম পুরণে সুযোগ না দেওয়ায় শিক্ষার্থীরা একটি প্রভাবশালী মহলের ইন্দনে বুধবার কলেজে এসে শিক্ষকদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করেছে। বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর লক্ষ্যে তিনি থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।

    সোনাগাজী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নুরুল করিম বলেন, কলেজ চলাকালীন সময়ে কিছু ছাত্র অধ্যক্ষের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে বিশৃঙ্খলা করছে এবং শিক্ষকদের সঙ্গে আসাধু আচারণ করছে। এমন খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্রদের সরিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে শিক্ষার্থীদের দাবী ধাওয়াগুলো লিখিত ভাবে অধ্যক্ষকে দেওয়ার কথা বলেছেন।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090