আজ

  • সোমবার
  • ৩রা আগস্ট, ২০২০ ইং
  • ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ছাগলনাইয়ার টুটুল:ছয় হাসপাতাল ঘুরে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু

  • নিজস্ব প্রতিনিধি
  • বড় ভাই মাকসুদুর রহমান টুটুলের (৩২) প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সযোগে চট্টগ্রামের এক হাসপাতাল থেকে আরেক হাসপাতালে পাগলের মতো ঘুরে বেড়িয়েছেন ছোট ভাই মিটুল চৌধুরী। একে একে নামিদামি ছয়টি হাসপাতাল ঘুরেছেন তিনি। আইসিইউ খালি নেই অজুহাত দেখিয়ে সব হাসপাতালই ভর্তি না নিয়ে ফেরৎ পাঠিয়েছে তাকে। এভাবে প্রায় তিন-চার ঘণ্টা এক হাসপাতাল থেকে আরেক হাসপাতালে ঘুরে বিনা চিকিৎসায় ভাইকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে দেখলেন মিটুল চৌধুরী।

    ফেনীর ছাগলনাইয়া উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের চম্পকনগর গ্রামের আবু তাহের চৌধুরীর বড় ছেলে মাকসুদুর রহমান টুটুল।

    রোববার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে চট্টগ্রামে মৃত্যু হয় তার।এদিন বিকালে তাকে বাড়ি থেকে প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সযোগে চট্টগ্রামে নিয়ে যায় পরিবারের সদস্যরা।

    সোমবার সকালে সাড়ে ১০ টায় নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

    মৃত টুটুলের ছোট ভাই মিটুল চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন,’ দুপুরের দিকে ভাইয়ের শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে তাকে প্রথমে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল চট্টগ্রামের রয়েল হাসপাতালে। সেখানে জরুরি বিভাগের ডাক্তার তার অক্সিজেন স্যাচুরেশন মেপে জানিয়েছিলেন টুটুলের আইসিইউ দরকার। তবে রয়েল হাসপাতাল থেকে সাফ জানিয়ে দেয়া হয় তাদের কোন আইসিইউ খালি নেই।

    এর পর ৪ ঘন্টা ধরে একে একে মা ও শিশু হাসপাতাল, ম্যাক্স হাসপাতাল, সিএসসিআর ও ট্রিটমেন্ট হাসপাতালে পাগলের মত ছুটলেও একটিরও আইসিইউ পাওয়া যায়নি। টুটুল চিকিৎসা বলতে পেয়েছিলেন রয়েল হাসপাতালে অক্সিমিটারে অক্সিজেন স্যাচুরেশন মাপাটাই শুধু।

    মিটুল চৌধুরী বলেন,’ পরে আমার ভাইয়ের অবস্থার আরও গুরুতর অবনতি ঘটলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে চমেক হাসপাতালে শুরুতেই যোগাযোগ করলেও সেখানেও কোন আইসিইউ খালি নেই বলে আমাদের জানানো হয়েছিল। সেখানে আমাদের বলা হয় যে, তারা কোন রোগী ভর্তি নেবে না, তাদের আইসিইউ নেই, চিকিৎসক নেই। বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে তারা আমার ভাইকে ভর্তি নেয়নি। যেখানে যাই সেখানে একই ধরনের অজুহাত দিয়ে ভর্তি নেয়নি। পরে অ্যাম্বুলেন্সের মধ্যেই আমার ভাই মারা যান।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমার ভাই এভাবে বিনা চিকিৎসায় মারা গেল চোখের সামনে। আমরা কিছুই করতে পারলাম না। এ শহরের এত এত হাসপাতাল, চিকিৎসক যদি আমাদের কোনো কাজে না আসে, এগুলো রেখে লাভ কী?’

    টুটুলের ছোট ভাই মিটুল চৌধুরী বলেন, ‘সরকারি ভাবে বলা হচ্ছিল চট্টগ্রামে অনেক সিট খালি। অনেক আইসিইউ খালি। এর মধ্যে আজ আমার ভাই বিনা চিকিৎসায় মারা গেল। আমরা ৪ ঘন্টা ধরে হাসপাতাল থেকে হাসপাতাল ছুটেছি কিন্তু কোন চিকিৎসা পাইনি।’

    এদিকে রাতেই টুটুলের মরদেহ নিয়ে ছাগলনাইয়ায় ফিরে যান পরিবারের সদস্যরা। মৃত টুটুল এক কন্যা সন্তানের জনক।

    ফেনী ট্রিবিউন/এটি/এএএম


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090