আজ

  • সোমবার
  • ২২শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টেন্ডারের একবছর পার : ইয়াকুবপুরে এখনো শুরু হয়নি সড়ক পাকাকরনের কাজ

  • দাগনভূঞা প্রতিনিধি
  • টেন্ডার হওয়ার একবছরেরও অধিক সময় পার হয়ে গেলেও এখনো শুরুই হয়নি ফেনীর দাগনভূঞার ইয়াকুবপুর ইউনিয়নের সফি চেয়ারম্যান দোকান হতে চৌধুরী গাজি বাড়ী সড়ক পাকাকরনের কাজ। এতে স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

    জানা যায়, গত অর্থ বছরে এলজিইডির অধিনে কামভূঞার পুল থেকে চন্ডিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত (সফি চেয়ারম্যানের দোকান টু চৌধুরী গাজি বাড়ী সড়ক) ৭৮০ মিটার সড়ক পাকাকরনের টেন্ডার করা হয়। সড়কটি পাকাকরনের ব্যায় ধরা হয় ৭০ লাখ ৮০ হাজার টাকা। টেন্ডারে সড়কটির পাকারনের কাজ পান নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার এয়াছিন ট্রেডার্স নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। কাজ পাওয়ার পর থেকে অধ্যবদি সড়কটির পাশেও আসেননি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কেউ। এমনটিই জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

    স্থানীয় বাসিন্দা হুমায়ুন জানান, এ সড়কটি দিয়ে চন্ডিপুর স্কুলের ছাত্র ছাত্রীরা বিদ্যালয়ে আসে। সড়কটির বর্তমানে এমন হাল হয়েছে যে এটি দিয়ে চলাফেরা অসম্ভব হয়ে পড়েছে। গাজী বাড়ীর পুকুরের দু’পাশে সড়কের বেশীরভাগ অংশই ভেঙ্গে পড়েছে ফলে স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের কামভূঞার পুল দিয়ে অনেকদুর ঘুরে আসতে হয়। দ্রুত সড়কটির কাজ শুরুর দাবী জানান স্থানীয় এ বাসিন্দা।

    স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. ফারুক জানান, এ সড়ক দিয়ে তিন গ্রামের মানুষের চলাচল। সড়কটির বর্তমানে ভেঙ্গে পড়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ায় গ্রামীন মানুষগুলোর চলাচলের মারাত্মক অসুবিধা হচ্ছে। তিন গ্রামের মানুষের চলাচলে জনদূর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। তাই এই তিন গ্রামের মানুষের জনদূর্ভোগ লাগবে দ্রুত রাস্তার কাজ শুরু করার দাবী জানিয়েছেন তিনি।

    ইয়াকুব ইউপি চেয়ারম্যান আবুল ফোরকান বুলবুল জনদুর্ভোগ লাগবে দ্রুত রাস্তার কাজ যেন শুরু করা হয় সে বিষয়ে ফেনী জেলা নির্বাহী প্রকৌশলীর দৃষ্টি আকর্ষন করে ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

    এ বিষয়ে দাগনভূঞা উপজেলা প্রকৌশলী সৌরভ দাস জানান, টেন্ডারের এক বছর পরও কেন রাস্তার কাজ শুরু করা হয়নি তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090