আজ

  • রবিবার
  • ১১ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দাগনভূঞার পূজা রানী দাস এখন রাইসা রিপন

  • দাগনভূঞা প্রতিনিধি
  • ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার জগতপুর গ্রামের সুনীল চন্দ্র দাস ও বিউটি রানী দাসের মেয়ে পূজা রানী দাস ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে এফিডেভিট করে বর্তমানে তার নাম রেখেছেন মোছাম্মৎ রাইসা রিপন। ঠাকুরগাঁও আদালতে নোটারি পাবলিক কর্তৃক এফিডেভিট এর মাধ্যমে তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

    এফিডেভিটে তিনি উল্লেখ করেন “আমি ধর্মীয় প্রতিজ্ঞা পূর্বক ঘোষণা করছি যে, আমি প্রাপ্তবয়স্ক সাবালক, আমার নিজের ভবিষ্যত জীবন সম্পর্কে ভাল-মন্দ বুঝার যথেষ্ট জ্ঞান আমার আছে। আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে ইসলাম সত্য। সনাতন হিন্দু ধর্মের আচার, অনুষ্ঠান, রীতিনীতি আমার কাছে ভালো লাগে না। পাশাপাশি ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে জীবন যাপন রীতিনীতি সামাজিক জীবন আমার ভালো লাগে। সেই হিসেবে আমি ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ি। ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান। এ মর্মে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি। এটি আমার জ্ঞান ও বিশ্বাস মতে সত্য।

    আমি প্রতিজ্ঞা করে আরো ঘোষণা করছি, আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ গ্রহণের সিদ্ধান্তের পর স্থানীয় মৌলভী সাহেবের মাধ্যমে শিক্ষা নিয়ে মুখে কলেমা তাইয়েবা (লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) এক আল্লাহকে মুখে স্বীকার করি করিয়া অন্তরে বিশ্বাস স্থাপন করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছি। আমি আমার নাম পূজা রানী দাস ত্যাগ করে ইসলাম ধর্মের নতুন নাম মোসাম্মৎ রাইসা রিপন গ্রহণ করেছি।

    এখানে আমি সর্বত্র মুসলমান হিসেবে মোহাম্মদ রাইসা রিপন নামে পরিচিত হবো ও আমার যাবতীয় কাগজপত্র নাম পরিবর্তন করেছি।”

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090