আজ

  • বৃহস্পতিবার
  • ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সোনাগাজীতে যুবলীগ সম্পাদককে সভাপতির হত্যার হুমকি

  • সোনাগাজী প্রতিনিধি
  • ফেনীর সোনাগাজীতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দলীয় কোন্দলের জের ধরে চর মজলিশপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার খায়েরের বিরুদ্ধে সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুককে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক তাঁর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার খায়েরসহ আটজনের বিরুদ্ধে রোববার বিকেলে সোনাগাজী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

    যুবলীগ সম্পাদক ওমর ফারুক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, মাদক ব্যবসায়ায় বাধা দেওয়াসহ দলীয় আভ্যন্তরিন দ্বন্দ্বের জের ধরে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার খায়েরের সঙ্গে বিরোধ চলে আসছে। বিরোধ নিয়ে আনোয়ার খায়ের বিভিন্ন সময় প্রকাশ্যে ও লোকের মাধ্যমে তাঁকে হত্যার হুমকি দেয়া অন্যথায় তাঁকে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে বলে।

    তিনি বলেন, আনোয়ার খায়েরের কোন কথা সাড়া না দেওয়ায় (২ মার্চ) সোমবার রাতে মাদক সেবন করে আনোয়ার খায়েরের নেতৃত্বে সাত-আটজন ওমর ফারুক তাঁর বাড়ির সামনের দোকানে এসে প্রকাশ্যে তাঁকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে তাঁর কথামত না চললে হত্যা করে লাশ গুম করার হুমকি দেয়। সর্বশেষ শনিবার সন্ধ্যায়ও তাঁকে হুমকি দেয় আনোয়ার।

    অভিযোগ অস্বীকার করে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার খায়ের বলেন, দলীয়ভাবে ওমর ফারুকের সঙ্গে তাঁর কোন দ্বন্দ্ব নেই। তবে তাঁর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক একজন মাদকাসক্ত। মাদক ব্যবসা থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য তাগিদ দেয়ায় রাজনৈতিকভাবে আলোচনায় আসার জন্য তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

    স্থানীয়রা জানায়, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময়সহ বিভিন্ন সময়ে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চর আনোয়ার খায়ের ও ওমর ফারুকের গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এখন নতুন করে সভাপতি-সম্পাদকের মধ্যে আবারও বিরোধ প্রকাশ্যে চলে আসায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

    জানতে চাইলে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আজিজুল হক হিরণ বলেন, তিনি বিষয়টি শুনেছেন। তবে জেলার নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করে বিবষয়টি সাংগঠনিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করছেন।

    সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আব্দুর রহিম বলেন, যুবলীগ নেতার অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্তের ঘটনার সত্যতা পেলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

    ফেনী ট্রিবিউন/এএএম/এটি/এপি


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090