আজ

  • বৃহস্পতিবার
  • ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গুরুর বিদায় একটি ইতিহাসের সমাপ্তি

  • আসাদুজ্জামান দারা
  • তিনি শুধু একজন আপাদমস্তক সাংবাদিকই ছিলেন না। তিনি ছিলেন সাংবাদিকতার শিক্ষক। নিজে সাংবাদিকতায় পড়াশোনা করেন নি। কিন্তু সাংবাদিকতার ছাত্রদের পড়াতে পারতেন অনায়াসে। সেই জ্ঞান, অভিজ্ঞতা, বিচক্ষণতা ও গভীর পান্ডিত্য তাঁর মাঝে ছিল। আমার মতো এমন বহু পেশাদার সাংবাদিকের গুরু ছিলেন নুরুল করিম মজুমদার। একটি ছোট মফস্বল শহর থেকে একটি সাপ্তাহিক কাগজ ৩৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে নিয়মিতভাবে প্রকাশ করে তিনি সাংবাদিকতায় এক অনন্য নজীর স্থাপন করে গেছেন।

    করিম ভাই ছিলেন যেন এক জীবন্ত ইতিহাস। ফেনীর অর্ধশত বছরের সাংবাদিকতা, রাজনীতি, সামাজিক-সাংস্কৃতিক তৎপরতা, প্রশাসনের খবরাখবরসহ নানা বিষয় ছিল তাঁর মুখস্ত। সংবাদ নির্মাণ, সংবাদ সম্পাদনায় ছিলেন অতীব দক্ষ। তিনি ছিলেন অত্যন্ত বন্ধুবৎসল, আড্ডাপ্রিয়, পরোপকারী। কোন সহকর্মী কোন সমস্যায় পড়েছেন জানলে ছুটে যেতেন। তরুনদের সাথে সময় কাটাতেন ঘন্টার পর ঘন্টা। কখনো কোন ভাব দেখাতেন না, বিরক্ত হতেন না। সাপ্তাহিক ‘হকার্সের’ বড় মসজিদ মার্কেটের দোতলার সেই অফিসে যে কতো সময় কাটিয়েছি তার হিসেব নেই। জীবনে তাঁর কাছ থেকে কতো কিছু শিখেছি তার কোন সীমা-পরিসীমা নেই।
    সাংবাদিক সমিতি ও প্রেস ক্লাব পরিচালনা, গঠনতন্ত্র প্রণয়নসহ নানা বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহনের ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন অনন্য। তিনি নিজেই যেন ছিলেন একটি প্রতিষ্ঠান। সারাজীবন সাংবাদিকতা করেছেন সৎভাবে। কখনো কোন লোভ-লালসার কাছে নতি স্বীকার করেন নি। সাংবাদিকতা পেশায় কয়েক দশক নিবিড়ভাবে থেকেও এ পেশা থেকে কোন সুবিধা গ্রহনের কথা ভাবেন নি তিনি।

    ফেনীর সাংবাদিকতা অঙ্গণে আরেকজন নুরুল করিম মজুমদারের আগমন কখনো ঘটবে কিনা জানিনা। তাঁর প্রয়াণের মধ্য দিয়ে একটি ইতিহাসের যেন সমাপ্তি ঘটল। গুরু যুগ যুগ বেঁচে থাকবেন আমাদের হৃদয়ে। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি। পরম করুণাময় ওপারে তাঁকে ভালো রাখুন।

    লেখক:
    আসাদুজ্জামান দারা
    সাবেক সভাপতি, ফেনী প্রেসক্লাব।


    error: Content is protected !! please contact me 01718066090